পোস্টটি পড়া হয়েছে 8,305 বার
eid prayer rules - ঈদের নামাজের নিয়ম

ঈদের নামাজের নিয়ম (অতিরিক্ত ৬ তাকবীর)

Post updated on 6th May, 2022 at 07:23 pm

ঈদের দিন জামাআতের সাথে ২ রাকাত সালাত আদায় করা ওয়াজিব। ঈদের দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আমল এটি। এছাড়াও ঈদের দিনে আরো কিছু সুন্নত আমল রয়েছে। ঈদের সালাতে অতিরিক্ত ৬টি তাকবীর দেয়া হয়ে থাকে। বছর ঘুরে ২ বার আমাদের জীবনে ঈদ আসে। তাই ঈদের সালাতের নিয়মটি ভুলে যাওয়া স্বাভাবিক। আগামী ঈদের দিন যেন আমরা জেনে বুঝে, নিশ্চিত হয়ে ঈদের সালাত আদায় করতে পারি এজন্য ঈদের ২ রাকাত সালাতের নিয়মটি সহীহ হাদীসের আলোকে হানাফী ফিকহ অনুযায়ী ধারাবাহিক ভাবে তুলে ধরা হলো।

নিয়ত করা

অন্যান্য সালাতের ন্যায় এই সালাতের জন্যও নিয়ত করা ফরজ। আমরা ঈদুল ফিতরের ২ রাকাত ওয়াজিব সালাত আদায় করার জন্য কাতারবদ্ধ হয়েছি – মনে মনে এই সংকল্প বা intention থাকাই যথেষ্ট। আরবি বা বাংলায় নির্দিষ্ট শব্দ ও বাক্যে মুখে উচ্চারণ করে “নিয়ত পড়া” জরুরি নয়।

তাকবীরে তাহরিমা বলে সালাত শুরু করা

ইমাম সাহেব তাকবীরে তাহরিমা আল্লাহু আকবার বলে সালাত শুরু করবেন। এরপর অন্যান্য সালাতের ন্যায় ইমাম সাহেব ও আমরা মনে মনে সানা পড়ব।

سُبْحَانَكَ اَللَّهُمَّ وَبِحَمْدِكَ وَتَبَارَكَ اسْمُكَ وَتَعَالِىْ جَدُّكَ وَلَا اِلَهَ غَيْرُكَ

অর্থঃ হে আল্লাহ! আমি আপনার সপ্রশংস পবিত্রতা ঘোষণা করছি, আপনার নাম বরকতপূর্ণ, আপনার মাহাত্ন সুউচ্চ এবং আপনি ব্যতীত কোন ইলাহ নেই)।

১ম রাকাতঃ অতিরিক্ত ৩টি তাকবীর

“সানা” পড়া শেষ হলে ইমাম সাহেব ৩ বার “আল্লাহু আকবার” বলে তাকবীর দিবেন।

প্রথম তাকবীরের সময় কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে দিব।

দ্বিতীয় তাকবীরের সময় কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে দিব।

তৃতীয় তাকবীরের সময় কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত নাভির নিচে বাঁধবো। (প্রথম ২টি তাকবীরের মত হাত ছেড়ে দিব না)

এরপর ইমাম সাহেব সূরা ফাতিহা পড়বেন। অন্য কোনো সূরা মিলাবেন। এরপর অন্যান্য সালাতের ন্যায় রুকু সিজদা আদায় করে ইমাম সাহেব ১ম রাকাত শেষ করে ২য় রাকাতের জন্য দাঁড়াবেন। প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা যথারীতি ইমামের অনুসরণ করব।

২য় রাকাতঃ অতিরিক্ত ৩টি তাকবীর

২য় রাকাতের শুরুতে ইমাম সাহেব সূরা ফাতিহা পড়বেন। এরপর অন্য কোনো সূরা বা সূরার অংশ তিলাওয়াত করবেন। রুকুতে যাওয়ার আগে ইমাম সাহেব ৩টি অতিরিক্ত তাকবীর দিবেন।

প্রথম তাকবীরের সময় কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে দিব।

দ্বিতীয় তাকবীরের সময় কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে দিব।

তৃতীয় তাকবীরের সময়েও কান পর্যন্ত হাত উঠিয়ে হাত ছেড়ে দিব। (১ম রাকাতের ৩য় তাকবীরের মত হাত বাঁধব না। বরং হাত ছেড়ে দিব)।

এরপর ইমাম সাহেব চতুর্থ তাকবীর বলবেন। এটি হচ্ছে রুকুতে যাওয়ার জন্য তাকবীর। চতুর্থ তাকবীর শুনে আমরা রুকুতে চলে যাব। এরপর বাকি সকল নিয়মকানুন অন্যান্য সালাতের মতই। আমরা ইমামকে অনুসরণ করে ২ রাকাত সালাত শেষ করব।

সালতের পরে ইমাম সাহেব ২টি খুতবা দিবেন। যা শোনা ওয়াজিব। অনেককেই দেখা যায় সালাত শেষে উঠে চলে যান। এটি গর্হিত অন্যায় একটি কাজ।

সংক্ষেপে ঈদের সালাতের মূল পার্থক্য

ঈদের সালাতে আমরা মূলত অতিরিক্ত তাকবীর নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগে থাকি। অতিরিক্ত তাকবীরের সময় দেখা যায় কেউ হাত তুলে হাত ছেড়ে দেন, কেউ বা আবার বেঁধে ফেলেন। কেউ বা আবার ভুলে রুকুতে চলে যান। আশা করি আসন্ন ঈদের সালাতে আমাদের এই ভুলগুলো হবে না।

সংক্ষেপে তাকবীরের নিয়মটা বলা যায় এভাবেঃ

প্রথম রাকাতের সানার পরে ২ বার কান পর্যন্ত হাত তুলে ছেড়ে দিব। ৩য় তাকবীরে হাত বেঁধে ফেলব।

আর ২য় রাকাতে রুকুর আগে ৩বার তাকবীরের সময়ই কান পর্যন্ত হাত তুলে হাত ছেড়ে দিব। চতুর্থ তাকবীরের সময় রুকুতে যাব।

আল্লাহ আমাদেরকে সঠিক ভাবে ঈদের সালাত আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমীন।

রেফারেন্স

1.
দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম
ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ
পৃষ্ঠাঃ ২৫৮
প্রকাশকালঃ জুন ২০০০
 
2.
মাওলানা মুহাম্মাদ আবদুর রহমান
মাসিক আলকাউসার, বর্ষঃ ১২, সংখ্যাঃ ৫
 
3.
মাওলানা ইবরাহীম আবদুল্লাহ
 
বিঃ দ্রঃ 
ঈদের সালাতে অতিরিক্ত তাকবীর কয়টি হবে বা এর নিয়ম কী হবে এ নিয়ে মাযহাবগত মতপার্থক্য রয়েছে। উপরের নিবন্ধটি সহীহ হাদীসের আলোকে হানাফী মাযহাবের মত অনুসারে লিখা হয়েছে। আপনি যদি ভিন্ন মাযহাবের অনুসারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার মাযহাবের আলেমদের থেকে জেনে নিয়ে সে অনুযায়ী আমল করতে পারেন। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার বা আলোচনার প্রয়োজন হলে অনুগ্রহ পূর্বক আলেমদের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হলো। আমরা এ বিষয়ে যুক্তিতর্ক বা অ্যাকাডেমিক আলোচনা করার যোগ্য নই। জাযাকাল্লাহু খাইর।

10 thoughts on “ঈদের নামাজের নিয়ম (অতিরিক্ত ৬ তাকবীর)

  1. রুকুর আগে অতিরিক্ত তিন তাকবীর দিতে হবে এই হাদিস দেখান

    1. আমি হাদীস শাস্ত্রে পন্ডিত কোনো ব্যক্তি নই। তাই আমার কাছে হাদীস দেখানোর কথা বলে লাভ নাই। পোস্টেই সারেন্ডার করা হয়েছে যে ঝগড়া-মারামারির মধ্যে আমি নাই। আপনি সংশ্লিষ্ট আলেমদের সাথে এ বিষয়ে কথা বলতে পারেন।

  2. মাশা আল্লাহ ভাই😊 খুব উপকৃত হলাম।

  3. ভাই, আপনি তো আচ্ছা মানুষ, পোস্ট টা পুরো না পড়েই লাফ দিয়ে উঠলেন। পোস্ট এর নিচে স্পষ্ট করে লেখা টা পড়ুন

  4. আলহামদুলিল্লাহ্,খুবই সুন্দর হয়েছে।অহেতুক তর্কবিতর্ক কাম‍্য নয়।

  5. আচ্ছালামু আলাইকুম ধন্যবাদ আপনাকে এই এপের মাধ্যমে অনেক কিছু জানিয়ে দেয়ার জন্য।এই এপ ব্যৱহার করে আমরা অনেক উপকৃত হয়েছি আসা করি আমার মতো আরো অনেকেই এই এপের মাধ্যমে উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *