পোস্টটি পড়া হয়েছে 7,743 বার
Fuchsia: Google's new operating system

গুগল তৈরি করছে নতুন অপারেটিং সিসটেম Fuchsia

“Pink + Purple == Fuchsia (a new Operating System)”

Google তৈরি করছে নতুন একটি অপারেটিং সিসটেম Fuchia (ফিউশা)। Linux Kernel এর উপর ভিত্তি করে তৈরি হওয়া জনপ্রিয় দুটি অপারেটিং সিসটেম Android ও Chrome OS থাকার পরেও গুগল ডেভেলপ করছে সম্পুর্ণ নতুন এই অপারেটিং সিসটেম। নতুন এই OS এর কার্নেল লিনাক্স নয়, বরং Magenta. স্মার্টফোন ও পারসোনাল কম্পিউটার উভয়ের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছে পরবর্তী প্রজন্মের অপারেটিং সিসটেম ফিউশা।



Custom Ad: Download App of Ramadan from Google Play Store

প্রশ্ন আসতে পারে, গুগল কেন নতুন করে একটা পূর্ণাঙ্গ অপারেটিং সিসটেম ডেভেলপ করা শুরু করল? যেখানে স্মার্টফোনের বাজার গুগলের এন্ড্রয়েড নিজেই দখল করে আছে প্রায় ৮০%; সেখানে আস্ত একটা OS Develop করার কী-ই বা কারণ থাকতে পারে? এর হয়ত অনেক কারণই আছে যা অফিসিয়াল্যি এখনো গুগল প্রকাশ করে নি।

তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন পুরান হয়ে যাওয়া লিনাক্স কার্নেল ছেড়ে বেরিয়ে আসতে চাইছে গুগল। লিনাক্স অত্যন্ত শক্তিশালী আর নির্ভরযোগ্য কার্নেল হলেও এটি যখন তৈরি করা হয়েছে তখন কম্পিউটারের কথা মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছিল। যদিও লিনাক্স কার্নেলের উপর ভিত্তি করে মোবাইল ও স্মার্ট ডিভাইসের OS তৈরি হয়েছে। কিন্তু ছোট ছোট ডিভাইসগুলোতে লিনাক্স খুব ভাল পার্ফরমেন্স দেখাতে পারছে না। তাই হয়ত গুগল চিন্তা করছে পুরোপুরি নতুন আর স্বয়ং সম্পন্ন একটি অপারেটিং সিসটেম তৈরি হবে Magenta Kernel এর উপর ভিত্তি করে। যা মোবাইল ও IoT Device-গুলোর জন্য আরো ভাল কাজে দিবে। যা বর্তমান এন্ড্রয়েডের চেয়ে কম RAM ব্যবহার করবে ও processor এর প্রসেসিং এর সময়ও হবে অনেক দ্রুত। গুগল যদি এই প্রডাক্ট এর ক্ষেত্রে সফল হয় তাহলে হয়ত Android ও Chrome OS উঠিয়ে দিয়ে তাদের সবগুলো ডিভাইসে Fuchsia’ই ব্যবহার করবে।

গুগলের দেয়া তথ্যানুযায়ী ২০১৭ সাল নাগাদ আমরা ফিউশা’র দেখা পাব। “যদি এবং কেবল যদি” এই প্রোজেক্টটা ঠিকঠাক মত শেষ হয় আর গুগল মনে করে যে এটা দিয়ে বিজনেস করা সম্ভব। কারণ গুগলের এরকম এক্সপেরিমেন্টাল অনেক প্রোজেক্টই আছে যেগুলো কখনো পাবলিকলি প্রকাশ হয় না বা সাদা বাংলায় বলতে গেলে ‘কখনোই আলোর মুখ দেখে না’।

Fuchsia Operating System এর user interface হবে material design এর উপর ভিত্তি করে। UI ও UX এর দিক দিয়ে অন্যান্য সব অপারেটিং সিসটেমকে ছাড়িয়ে যাবার একটা প্রচেষ্টা হয়ত গুগলের থাকবে। এছাড়াও নতুন এই OS হবে এন্ড্রয়েডের তুলনায় আরো নিরাপদ বা secured.

ফিউশা’র ডেভেলপমেন্টের জন্য মূলত ব্যবহার করা হচ্ছে Dart programming language. এর কার্নেল ম্যাজেন্টা ডেভেলপ করা হয়েছে C language দিয়ে। ফিউশার জন্য আরো ব্যবহার করা হচ্ছে C, C++, Python ও Go programming language. এটি একটি open source project. তাই এর সকল সোর্স কোড সকলের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।

ফিউশা’র সোর্সকোড দেখা যাবে তাদের গিটহাব রিপোজিটরিতে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *